শ্যামল মাটির ধরাতলে

June 27, 2020 9:35 pm
ROTARY BETAGI UNION HIGH SCHOOL, ABUL HAYAT CHOWDHURY, ESKANDER AHMED CHOWDHURY, JAPAN, RI 2770, SHYAMOL MATIR DHORATOLEY

বিছমিল্লাহির রাহমানির রাহিম

সূচীপত্র

 

প্রসঙ্গ কথা

ভূমিকা

 

আদি পর্ব

গ্রামের নাম বেতাগী

সূচনায়

এই প্রচেষ্টায় আমার অংশগ্রহণ

প্রস্তুতি

নির্বাচিত স্থানটির কার্যকারিতা

যাত্রারম্ভ

অনুমোদন

জনাব আমানত খানের আশীর্বাদ

শিক্ষা বোর্ডের স্বীকৃতি

আয়কর রেয়াত

পথ চলে যাই

 

রোটারী পর্ব

একটি বাল্যস্মৃতি

উদ্যোগ-আয়োজন

বেতাগী ইউনিয়নের মানচিত্র

আশা-নিরাশার দোলনায়

রোটারীয়ানদের সঙ্গে সম্পর্ক

রোটারী ক্লাবের কথা

রোটারী ক্লাবে আমার কথা

দিয়ে তবে পাওয়া

সাধ্য যেথা নেই

আমার প্রতিবেদন

সাকুরা-চম্পা-নীহারিকা

বিদ্যালয়-সঙ্গীত

জাপানদেশে বেতাগী

অবিস্মরণীয় কথা

একটি প্রশ্ন

আমার আত্মজিজ্ঞাসা

শিক্ষার অঙ্গনে

ব্যবহারিক শিক্ষা

কারিগরি শিক্ষা

আমাদের বাংলা উচ্চারণ

 বিলুপ্ত একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কথা

আন্তর্জাতিক সম্মিলন

দান করে দাতাও উপকৃত

সংবর্ধনা

মোদের গর্ব মোদের আশা

 

 

পরিশিষ্ট-১ :   প্রস্তুতি কমিটি

পরিশিষ্ট-২ :   সাংগঠনিক কমিটি

পরিশিষ্ট-৩ :   স্থান নির্বাচনী কমিটি

পরিশিষ্ট-৪ :   আবেদন

পরিশিষ্ট-৫ :   আবেদন

পরিশিষ্ট-৬ :   চাঁদা দাতাদের নামের তালিকা (দেশে)

পরিশিষ্ট-৭ :   মহকুমা শিক্ষা অফিসারের রিপোর্ট

পরিশিষ্ট-৮ :   শিক্ষা বোর্ডের স্বীকৃতি পত্র

পরিশিষ্ট-৯ :   রাজস্ব মওকুফ পত্র

পরিশিষ্ট-১০:   রোটারী বেতাগী শুভেচ্ছা বিদ্যালয় পত্রিকা

পরিশিষ্ট-১১:   জাপানের বিভিন্ন রোটারী ক্লাবের ভূমিকা

পরিশিষ্ট-১২:   চাঁদা দাতাদের নামের তালিকা (জাপানে)

পরিশিষ্ট-১৩:   একনজরে বিদ্যালয়

পরিশিষ্ট-১৪:   শ্যামল মাটির ধরাতলে  

পরিশিষ্ট-১৫:   জাপানী রোটারীয়ান যারা বেতাগী সফর করেছেন

পরিশিষ্ট-১৬:   জাপানী রোটারীয়ানেরা কে কি বলেন

পরিশিষ্ট-১৭:   চিত্রে রোটারী বেতাগী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়

পরিশিষ্ট-১৮:   বেতাগী শুভেচ্ছা বিদ্যালয় নির্মাণ পরিকল্পনা ১৯৬৮

পরিশিষ্ট-১৯:   রোটারী বেতাগী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদ

পরিশিষ্ট-২০:   রোটারী বেতাগী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষকমন্ডলী

পরিশিষ্ট-২১:   বেতাগী গুডউইল স্কুল ফাউন্ডেশন সাধারণ পরিষদ

পরিশিষ্ট-২২:   বেতাগী গুডউইল স্কুল ফাউন্ডেশন কার্যকরী পরিষদ

পরিশিষ্ট-২৩:   প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিভিন্ন শ্রেণীতে ছাত্রসংখ্যা (মাধ্যমিক)

প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিভিন্ন শ্রেণীতে ছাত্রসংখ্যা (প্রাথমিক)

পরিশিষ্ট-২৪:   প্রতিষ্ঠার পর থেকে SSC পরীক্ষাসমূহের ফল

পরিশিষ্ট-২৫:   জাপানে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের নিকট প্রধান শিক্ষকের পত্র 

পরিশিষ্ট-২৬:   জাপানে বাংলাদেশ রাষ্ট্রদূতের সুপারিশপত্র

পরিশিষ্ট-২৭:   জনাব সৈয়দ মাহমুদুল হকের নিকট জনাব ইসকান্দার আহমদ চৌধুরীর পত্র

পরিশিষ্ট-২৮:   অধ্যাপক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের নিকট জনাব ইসকান্দার আহমদ চৌধুরীর পত্র

পরিশিষ্ট-২৯:   গভর্ণর য়্যাসুহিরো সানোর নিকট আগ্রাবাদ RC প্রেসিডেন্টের পত্র

পরিশিষ্ট-৩০:   সুগিতো RC -এর নিকট আগ্রাবাদ RC -এর পত্র

পরিশিষ্ট-৩১:   RI -এর নিকট জনাব ইসকান্দার আহমদ চৌধুরীর পত্র

পরিশিষ্ট-৩২:   RI-এর জবাব

পরিশিষ্ট-৩৩:   রোটারীয়ান হিরোমু আকিয়্যামাকে আগ্রাবাদ RC -এর Crest উপহার

 

 

মন্তব্য:

  • সূচিপত্রে উল্লেখিত বিষয়ে ক্লিক করলে এর বিস্তারিত বর্ণনা দেখতে পাবেন। 
  • অতিরিক্ত কিছু প্রাসঙ্গিক ছবি সংযুক্ত করা হয়েছে, যা মূল বইয়ে নাই। 

 

 

প্রসঙ্গ-কথা

শ্যামল মাটির ধরাতলে: একটি বিদ্যালয়ের ইতিকথা” হচ্ছে চট্টগ্রাম জিলার রাঙ্গুনিয়া থানার অন্তবর্তী বেতাগী গ্রামে অবস্থিত রোটারী বেতাগী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা ও উন্নয়নের কাহিনী । ১৯৬৮ সনে প্রতিষ্ঠাকালে এই বিদ্যালয়ের নাম ছিলো বেতাগী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়। ১৯৮৭ সনে আগ্রাবাদ রোটারী ক্লাব কর্তক একটি CS প্রকল্পরূপে এবং ১৯৮৯ সনে Japan-এর Rotary International District 2770 কর্তৃক WCS প্রকল্পরূপে গৃহীত হওয়ার পর জিলার PDG Hiromu Akiyama-এর প্রস্তাবক্রমে নামের আদ্যে Rotary যুক্ত করে নতুন নামকরণ করা হয়েছে রোটারী বেতাগী ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় । তার প্রতিষ্ঠা ও উন্নয়নেরে আয়োজন ক্ষেত্রে যে সমস্ত ঘটনা সংঘটিত হয়েছে, নিঝরিত হয়েছে যে অশ্রু ও ঘর্ম তারই প্রকাশ্য ও নেপথ্য কাহিনী সুধীবর্গের অবগতি ও রেকর্ডরক্ষার প্রয়োজনে এবং আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মগুলো যাতে জানতে পারে বিংশ শতাব্দীর শেষ পাদে বেতাগী অঞ্চলে শিক্ষাবিস্তারের জন্য কি প্রচেষ্টা চালানো হয়েছিল সেই লক্ষ্যে এই গ্রন্থ রচনার প্রয়াস।

অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে স্মৃতিনির্ভর হওয়ার কারণে কাহিনী বর্ণনায় অহংমুক্ত হওয়া সম্ভবপর হয়নি। শ্রদ্ধেয় জনাব সৈয়দ আহমদুল হক যেমন তার ভূমিকায় বলেছেন, অহংমুক্ত না হতে পারাটাই হচ্ছে এই গ্রন্থ রচনার “একটা বিরাট সীমাবদ্ধতা” । সেই দুর্বলতা সবিনয়ে স্বীকার করে নিচ্ছি। প্রকৃতপক্ষে উত্তম পুরুষে সর্বনাম এবং কর্তাবিহীন কর্মবাচ্যপদ এই দুয়ের মধ্যে কোনটি শ্রেয় তা সঠিক নির্ণয় করতে না পারাটাই এই দুর্বলতার কারণ।

গ্রন্থটিতে কাহিনী বর্ণনার সঙ্গে সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত দলিলপত্রের অনুলিপি এবং বেতাগী সফরের পর জিলাকে জাপানী রোটারীয়ানদের প্রদত্ত রিপোর্টে তাদের অভিমতও বাংলা তরজমা করে পরিশিষ্টে সংযোজিত করা হয়েছে।

চট্টগ্রামের কৃতি-সন্তান, মরমী গবেষক জনাব আলহাজ্ব সৈয়দ আহমদুল হক ভূমিকা লিখে দিয়ে গ্রন্থটিকে উচ্চ মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করেছেন এবং আজীবন স্নেহধন্য গ্রন্থকারদ্বয়কে করেছেন বিশেষ সম্মানিত। প্রখ্যাত শিল্পী জনাব আজিজ নঈমী প্রচ্ছদ এঁকে দিয়ে গ্রন্থের বিরাট শ্রীবৃদ্ধি সাধন করেছেন এবং আমাদেরকে করেছেন কৃতজ্ঞতাপাশে আবদ্ধ। স্নেহাস্পদ আমিনুল আজম চৌধুরী আরজু গ্রামে বসবাসকারী গ্রন্থকার এবং শহরভিত্তিক প্রিন্টারের মধ্যে সমন্বয়কারী ভুমিকা পালন মাধ্যমে গ্রন্থটি প্রকাশে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে। বেগম আর্ট প্রিন্টার্স-এর মালিক জনাব রফিক উদ্দীন খান এবং কম্পিউসার্ভের স্বত্বাধিকারী জনাব এস এ মজুমদার সোহেল গ্রন্থের স্বচ্ছন্দ ও তুরিত প্রকাশে যে মূল্যবান সহযোগিতা দিয়েছেন তার জন্য তাঁদের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ। আর বেতাগী গুডউইল স্কুল ফাউন্ডেশন গ্রন্থটি প্রকাশের ভার গ্রহণ করায় ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তাদেরকে জানাচ্ছি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

 

মোহাম্মদ আবুল হায়াত চৌধুরী

ইসকান্দার আহমদ চৌধুরী

৩০ আগষ্ট ১৯৯৬

 

 

 

সম্মানিত পাঠকের উদ্দেশ্য আমার কিছু কথা

Mohammad Mamun

আসসালামু আলাইকুম;

মহান আল্লাহর নিকট অশেষ শোকরিয়া আদায় করছি যে, আমার মত নগন্য একজন বেতাগী ইউনিয়নের প্রাণপুরুষ মরহুম মোহাম্মদ আবুল হায়াত চৌধুরী ও মরহুম ইসকান্দার আহমদ চৌধুরী এর লিখিত বই “শ্যামল মাটির ধরাতলে” এর অনলাইন ভার্সন প্রকাশ করতে সক্ষম হয়েছি। আমার ক্ষুদ্র জ্ঞানে উপলব্ধ হয় যে, এই বইটি বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য প্রেরণার উৎস হিসাবে কাজ করবে। অনেক অজানাকে জানতে পারবে। বর্তমানে বইটি খুবই কম সংখ্যক লোকের নিকট রয়েছে বা পাওয়া দুষ্কর। যার কারণে এর ব্যাপকতা মানুষের অন্তরালে রয়ে গেছে। তাই আমি স্ব-উদ্যোগে বইটির অনলাইন ভার্সন প্রকাশের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করি।

মহান প্রাণপুরুষগণ যাদের মেধা, শ্রম, ত্যাগ ও আর্থিক সাহায্য সহযোগিতায়  আজকের বেতাগী সত্যিই আলোকিত হয়েছে তাদের সকলকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করছি।

বইটি সময় নিয়ে সম্পূর্ণ অংশ পড়ার চেষ্টা করবেন। লিখাটির ব্যাপক প্রচারের উদ্দেশ্যে সকলে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করবেন এবং বইটি সম্পর্কে আপনার মূল্যবান মন্তব্য জানাবেন এই আশা ব্যক্ত করছি।

পরিশেষে বইটি অনলাইন করণে আমাকে সহযোগিতা করায় বন্ধু রাসু নাথ; আমার ছোট ভাই সৈয়দ মোহাম্মদ রিমন ও আমার ভাইপো সৈয়দ মোহাম্মদ তোহাসীন এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

মহান আল্লাহ আমাদের সকলকে হায়াতে তৈয়বা দান করুক এই আশা ব্যক্ত করে শেষ করছি। আল্লাহ হাফেজ।

 

মুহাম্মদ মামুন

পিতা: মোহাম্মদ মিয়া

গ্রাম:মধ্য বেতাগী, ডাকঘর- বেতাগী, উপজেলা: রাঙ্গুনিয়া, জেলা- চট্টগ্রাম।

মোবাইল নং- ০১৮১৫৭৮৮৭৪৪

 

Next

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *