প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন ২০২০

February 29, 2020 9:42 pm
সমাপনী বৃত্তির প্রজ্ঞাপন ২০২০

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন / নীতিমালা: প্রাথমিক ও ইবতে শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা পরিচালনা সংক্রান্ত নির্বাহী কমিটির ৩০তম সভার সিদ্ধান্তের আলোকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের স্মারক নং-৩৮,০১,০০০০.১০৭.৩৩.০০৮.১৫.৫০৯, তারিখঃ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ অনুয়ায়ী প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা ২০১৯ এর ফলাফলের ভিত্তিতে সংযুক্ত বিবরণ অনুযায়ী বৃত্তির জন্য নির্বাচিত ছাত্রছাত্রীদের তালিকা প্রকাশ করা হলো। তালিকায় তে ছাত্রছাত্রীদের অনুকূলে নিম্ন বর্ণিত হার ও শর্ত সাপেক্ষে ১ লা জানুয়ারি ২০২০ তারিখ হতে ৩ (তিন) বছরের অন্য প্রাথমিক শিক্ষা ট্যালেন্টপুল ও সাধারণ বৃত্তি নির্ধারণ করা হলো।

 

Latest Update Job Circular

সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন ২০২০

 

সমাপনী বৃত্তি পরীক্ষার প্রজ্ঞাপন ২০২০

-:বৃত্তি পরিচিতি:-

(১) পঞ্চম শ্রেণিতে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলের উপর ভিত্তি করে দু ধরনের বৃত্তি প্রদানের সংস্থান রাখা হয়েছে;

ক) ট্যালেন্টপুল বৃত্তি- ৩৩,০০০টি ও (খ) সাধারণ বৃত্তি – ৪৯ ৫০০টি।

(২) ক. উপজেলা/ থানার আওতাধীন প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ছাত্রছাত্রীদের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে ট্যালেন্টপুল বৃত্তি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। মেধাক্রম অনুসারে উপজেলা/ থানার মোট বৃত্তি ৫০% ছাত্র ও ৫০% ছাত্রীদের মধ্যে বন্টন করা হয়েছে। অর্থাৎ সকল ট্যালেন্টপুল ও সাধারণ বৃত্তি প্রদানের ক্ষেত্রে ছেলে ও মেয়ের ব্যয় অভিন্ন।

খ. ট্যালেন্টপুল বৃত্তি বন্টনের পর প্রতি উপজেলা/ থানার ইউনিয়ন/ওয়ার্ডের (সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভা) তিনজন ছাত্র ও তিনজন ছাত্রীর মধ্যে মেধানুসারে সাধারণ বৃত্তি প্রদান কর হয়েছে।

(৩) নির্ধারিত কোটা অনুযায়ী সাধারণ বৃত্তি এবং মেধাক্রম অনুসারে ট্যালেন্টপুল বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। তবে যে ইউনিয়ন ওয়ার্ডে দেখা ছাত্রী পাওয়া যায়নি সেক্ষেত্রে ছাত্রী হলে ছাত্রকে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে এবং অনুরূপভাবে যেখানে যোগ্য ছাত্র পাওয়া যায়নি সেক্ষেত্রে ছাত্রের স্থলে ছাত্রীকে বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে।

(৪)  যে,ওয়ার্ড (পৌরসভা (সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্ভুক্ত) যোগ্য ছাত্রছাত্রী পাওয়া যায়নি সেক্ষেত্রে একই উপজেলা/ থানার আওতায় যোগ্য ছাত্রছাত্রীর মধ্যে মেধাক্রম অনুসারে (সাধারণ বৃত্তি) পুনঃবন্টন পূর্বক সম্পূরক বৃত্তি দেয়া হয়েছে।

 

 

-:বৃত্তির হার ও মেয়াদ:-

১। ট্যালেন্টপুল:

বৃত্তির হার মাসিক: ৩০০/-

বৃত্তির হার এককালীন প্রতি বছর: ২২৫/-

২। সাধারণ:

বৃত্তির হার মাসিক: ২২৫/-

বৃত্তির হার এককালীন প্রতি বছর: ২২৫/-

মেয়াদ: উভয় ক্ষেত্রে ০১.০১.২০২০ খ্রি. হতে ০৩ (তিন) বৎসর পর্যন্ত।

 

 

 

-:বৃত্তির শর্তাবলী:- 

(১) বৃত্তিধারী ছাত্র/ছাত্রীর সদাচরণ, বিদ্যালয়ে নিয়মিত উপস্থিতি ও সন্তোষজনক পাঠোন্নতি সাপেক্ষে বৃত্তির অর্থ প্রদান করা হবে।

(২) সকল বৃত্তিধারী বিনা বেতনে যে কোন সরকারি, স্বীকৃতিপ্রাপ্ত বে-সরকারি মাধ্যমিক, নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ লাভ করবে;

(৩) কোন ছাত্রছাত্রী অনুমোদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি না হলে বৃত্তির অর্থ পাওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না। অননুমোদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়ন কালে পাঠ-বিরতি ( ব্রেক অব স্টাডি) হিসেবে গণ্য হবে।

(৪) ক. চলমান ২০২০ সাল এবং পূর্ববর্তী বিভিন্ন মেয়াদে রাজস্ব খাতভুক্ত বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ২০১৯-২০২০ অর্থ বৎসর হতে বৃত্তি অর্থ জি-টু-পি (ইএফটি) এর আওতায় শিক্ষার্থীদের ব্যাংক হিসাবে অনলাইনে প্রেরণ করা হবে;

খ. বে-সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক নির্ধারিত বিল ফরমে সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা শিক্ষা অফিসার কর্তৃক প্রতিস্বাক্ষরের পর স্ব স্ব এলাকার সরকারি কোষাগার হতে বৃত্তির টাকা উত্তোলন করে বন্টন করবেন।

(৫) বৃত্তি সংক্রান্ত অন্যান্য শর্তাবলি সরকারের অনুমোদনক্রমে সময় সময় আরোপিত হতে পারে। এ সরকারি আদেশের অর্থ বৃত্তির সংখ্যা, হার ও সময়সীমা শর্ত সাপেক্ষে যে কোন সময় সরকার পরিবর্তন করতে পারে এবং সরকার প্রয়োজন বোধ করলে কোন কারণ দর্শানো বাতিরেকে সংশোধন ও বাতিল করতে পারবেন।

(৬) এ সরকারি আদেশে অন্তর্ভুক্ত যাবতীয় ব্যয় সংশ্লিষ্ট অর্থ বৎসরের বাজেটের “১২৫০২০১-১০৮*৭৬২-৩৮২১১১৭” বৃত্তি ও মেধাবৃত্তি খাতে বরাদ্দকৃত অর্থ হতে মেটানো হবে।

(৭) বরাদ্দকৃত টাকার বিল প্রতি আর্থিক বৎসবের শেষ অর্থাৎ ৩০ জুনের মধ্যে উত্তোলন করতে হবে, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে উত্তোলন না করলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের পুনঃমঞ্জুরী গ্রহণ করে উত্তোলন করা যাবে।

(৮) সাধারণ ‍বৃত্তি ও সম্পূরক বৃত্তির মধ্যে কোন পার্থক্য নেই এবং

(৯) প্রকাশিত ফলাফলে কোন ধরণের ত্রুটি পরিলক্ষিত হলে মাপরিচালক, মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তর প্রাথমিক বৃত্তির তালিকা সংশোধন, বাতিল ও পুনবন্টনের ক্ষমতা সংরক্ষণ করেন।

 

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন/নীতিমালাটির পিডিএফ ফাইল ডাউনলোড করুন:

সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন

 

উল্লেখ্য যে, প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষার ফল গত  ২৫/০২/২০২০ খ্রি. প্রকাশ করা হয়েছে। এবার প্রাথমিকে বৃত্তি পেয়েছে সর্ব মোট সাড়ে ৮২ হাজার শিক্ষার্থী। একই দিনে ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার বৃত্তির ফলও প্রকাশ করা হয়েছে। ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রি.  দুপুর ১২টায় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন আনুষ্ঠানিকভাবে বৃত্তির ফল  ডিপিএ অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.dpe.gov.bd -এ প্রকাশ করা হয়েছে।

 

যদি পোস্টটি আপনার ভাল লাগে তাহলে শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You May Also Like